More
    Homeবিজ্ঞান ও প্রযুক্তিভূতুড়ে গ্লাভস বানিয়ে চমকে দিতে পারো বন্ধুকে

    ভূতুড়ে গ্লাভস বানিয়ে চমকে দিতে পারো বন্ধুকে

    বিজ্ঞান ভালোবাসো?তাহলে এই লেখাটি তোমার জন্য।পৃথিবীতে সব থেকে মজার এবং আশ্চর্যের বিষয় হলো বিজ্ঞান।চাইলে ভূতুড়ে গ্লাভস বানিয়ে চমকে দিতে পারো বন্ধুকে।

    বিজ্ঞানের নানা কলকৌশল দিয়ে তুমি এমন কিছু করতে পারবে যা সবাইকে চমকে দেবে। বদলে দেবে জীবন ব্যবস্থা।

    আচ্ছা ধরো অতোটা সিরিয়াস কিছু তুমি করতে চাওনা শুধু বন্ধুদের সাথে মজা করতে চাও।তাহলেও বিজ্ঞান তোমাকে সহযোগিতা করবে।

    আমরা আজ শিখবো কি করে ঘরে বা ক্লাসে ভুতুড়ে গ্লাভস বানাতে হয়।

    কি কি লাগবে?

    • বেকিং সোডা
    • ভিনেগার
    • গ্লাস
    • সার্জিক্যাল গ্লাভস।

    তুমি ভাবতে পারো এটি একটি মাল্টি স্টেপস প্রকৃয়া।তোমরা নিশ্চই জানো ভিনেগার হলো এসিটিক এসিড আর বেকিং সোডা হলো সোডিয়াম বাই কার্বনেট। এর একটা  বেজ রয়েছে।

    আমরা যখন এদুটোকে মিক্সড করি তখন তারা শুধুই মিক্সড হয় না বরং তাদের অণুগুলো অন্য কিছুর মধ্যে পুনরায় সাজানো থাকে!

     

    তাহলে চলো শুরু করি?

    প্রথমে কাচের গ্লাসে তিন টেবিল চামচ ভিনেগার (৪৫ মিলি) ঢেলে দাও।নিচের ছবিটা দেখো!

    গ্লাসে ভিনেগার দেওয়া হচ্ছে

     

    তোমার কাছে নিশ্চই একটা সার্জিক্যাল গ্লাভসও আছে।আমরা শুরুতেই যেটা নিয়েছিলাম।এবার সেটার মধ্যে ২ টেবিল চামচ (১০ মি.লি) বেকিং সোডা ভরে নাও।নিচের ছবি দেখো।

    গ্লাভসে বেকিং সোডা ভরা হচ্ছেে

     

    এবার গ্লাভসের মূখ বন্ধ করে ছবির মত উচু করে ধরো এবং একটু ঝাকি দাও যেন বেকিং পাউডার বা বেকিং সোডা আঙ্গুলের অংশে চলে যায়!

    এবার নিচের ছবির মত করে বেকিং সোডা ভর্তি সার্জিক্যাল গ্লাভসটাকে ভিনেগারওয়ালা গ্লাসের মুখে সেট করো।

    ছোটদেরবন্ধু

     

    ভুতুড়ে গ্লাভস তৈরির খেলার প্রায় শেষের দিকে চলে এসেছি আমরা। এবার তুমি গ্লাভসের আঙ্গুলের অংশ ধরে উচু করো যেন ভিতরে থাকা বেকিং সোডা গ্লাসে রাখা ভিনেগারের মধ্যে পড়ে। নিচের ছবিতে দেখো।

    গ্লাভসের আঙ্গুল ধরে বেকিং সোডা নিচে দেওয়া হচ্ছে।

     

    তোমার ভুতুড়ে গ্লাভস তৈরি শেষ। এবার গ্লাভসের আঙ্গল ছেড়ে দাও আর দেখো কি ম্যাজিকটাইনা তৈরি করে ফেলেছো। তুমি নিশ্চই দেখে অবাক হয়ে যাবে। যেমন নিচের ছবিটা দেখো।

    ভুতুড়ে গ্লাভস

    বেকিং সোডা আর ভিনেগার একসাথে মিশে প্রতিক্রিয়া হিসেবে বুদবুদ তৈরি করে গ্লাভসকে ফুলিয়েছে।

    যখন সোডিয়াম বাইকারোনেট অ্যাসেটিক এসিড সংমিশ্রিত হয়, তখন তারা কার্বনিক অ্যাসিড গঠন করে।

    যা প্রতিক্রিয়াটির দ্বিতীয় অংশে কার্বন ডাই অক্সাইড এবং পানিতে ভাগ করে। কার্বন ডাইঅক্সাইড বুদবুদ উপরে ঠেলে দেয় এবং এটি গ্লাভসকে ফুলিয়ে তোলে।

    লেখাঃ জাজাফী


    আরও পড়ুনঃ

     

     

     

    ছোটদেরবন্ধু
    ছোটদেরবন্ধুhttps://www.chotoderbondhu.com
    সুন্দর আগামীর স্বপ্ন দেখতে দেখতে জীবনের এক একটি দিন পার করা।সেই ধারাবাহিকতায় ছোটদেরবন্ধু গড়ে উঠছে তিল তিল করে।
    RELATED ARTICLES

    Most Popular