ফিচার শিশু অধিকার সেরাদের গল্প 

পথশিশু নয় বরং সুবিধা বঞ্চিত শিশু বলার দাবী নিয়ে কাজ করছে তাহমিদ

যে সব শিশু কিশোর কিশোরী দারিদ্রপীড়িত হয়ে অনাহারে অর্ধাহারে রাস্তায় রাস্তায় দিন রাত কাটিয়ে দেয় আমাদের সমাজ এবং সমাজের মানুষ তাদেরকে পথশিশু বলে অভিহিত করে থাকে।এই কথাটিতে দ্বিমত পোষণ করেছে তাহমিদ।পথশিশু নয় বরং সুবিধা বঞ্চিত শিশু বলার দাবী নিয়ে কাজ করছে তাহমিদ।পুরো নাম তাহমিদ হোসেন অন্ত।তাহমিদের ভাষায় ওরা রাস্তায় বা পথে থাকে বলে ওদেরকে কোন ভাবেই পথশিশু বলা ঠিক নয়। তামহিদের ভাষায় “পথশিশু নয় বরং সুবিধা বঞ্চিত শিশু বলতে হবে ওদেরকে“।এটিকে অনেকটা অপমানসুচক শব্দ হিসেবেও বিবেচনা করা যেতে পারে। যেমন আমরা জানি খোড়াকে খোড়া বলা অপরাধ অন্ধকে অন্ধ বা কানা বলাও অপরাধ।আমাদের শালীন ভাষায় বলতে হয় প্রতিবন্ধী।

তাহমিদ হোসেন অন্ত। অগ্রণী স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এসএসসি এবং রাজশাহী সরকারী সিটি কলেজ থেকে এইচএসসি শেষ করে তাহমিদ বর্তমানে নর্থ বেঙ্গল ইন্টার ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে পড়াশোনা করছে।পাশাপাশি সুবিধাবঞ্চিত শিশু কিশোর কিশোরীদের জন্য অবিরাম কাজ করে যাচ্ছে।তাহমিদ স্বপ্ন দেখে সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে থেকে নিজের সাধ্যমত কাজ করে যাওয়ার। আমরাও সেই প্রত্যাশা ব্যক্ত করছি।

সদা হাস্যজ্জল তাহমিদ স্বপ্ন দেখে একটি সুন্দর আগামীর যে স্বপ্ন নিয়ে কাজ করছে ছোটদেরবন্ধু।এমন একটি আগামীর স্বপ্ন সে দেখে যেখানে কোন ভেদাভেদ থাকবে না যেখানে প্রতিটি শিশু কিশোর কিশোরী থাকবে নিরাপদ এবং পাবে তাদের মৌলিক সব অধিকার।স্কুলে যাবে বিশ্বের শতভাগ শিশু এটাও একটি লক্ষ্য।আমরা যখন ছোটদেরবন্ধু পরিবারের পক্ষ থেকে তাহমিদের সাথে কথা বললাম সে সানন্দে রাজি হলো আমাদের হয়ে কাজ করতে এবং তার ভালোকাজের কথা সবার সাথে ছড়িয়ে দেওয়ার বিষয়েও সে রাজি হলো।

বৃহত্তর রাজশাহী অঞ্চলেও ঢাকা ও আসেপাশের মত অনেক শিশু কিশোরকে নিদারুন ভাবে দিনাতিপাত করতে হয়।আমরা সব সময় শুধু রাজধানীকেন্দ্রীক চিন্তা করি বলেই সেই সব শিশু কিশোর কিশোরীদের কথা আমাদের কারো মনে আসেনা।এ দিক থেকে তাহমিদ অনেক এগিয়ে।সে শুধুমাত্র ঢাকাকেন্দ্রীক চিন্তা না করে সুদুর রাজশাহীতে থেকে সেখানকার সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের কিশোর কিশোরীদের জন্য অবিরাম কাজ করে যাচ্ছে। শীতের সময় সেই সব অবহেলিত শিশু কিশোর কিশোরীদের কথা চিন্তা করে মানুষের কাছে গিয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে সে অনুরোধ করেছে এবং তার টিম নিয়ে টাকা ও কাপড় সংগ্রহ করে অবহেলিত সুবিধাবঞ্চিত শিশু কিশোর কিশোরীদের মধ্যে শীতের কাপড় বিলিয়ে দিয়েছে।

আমরা যখন জানতে চাই আপনিকি খ্যাতি ও যশের লোভে এসব করেন তখন তাহমিদ হেসে দিয়ে বলে যদি খ্যাতি এবং যশের আশায় করতাম তাহলে আজকে আমার অনেক টাকা থাকতো আর আমাকে সবাই চিনতো।আমরা নিভৃতচারী মানুষ এবং আমরা ওদের অধিকারের জন্য ওদের একটুখানি ভালোবাসা দেওয়ার জন্য কাজ করছি।আমরা কখনো খ্যাতি সম্মান যশের আশায় সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য কাজ করিনা।যারা করে তারাতো এক টাকা দান করলে তিনটা ছবি তুলে সেটা ফেসবুকে শেয়ার দেয় কমেন্ট লাইকের বন্যায় ভেসে যায় তাদের ওয়াল।

তাহমিদের কথা শুনে আমাদের আনন্দ হয়।যারা এমন করে কোন কিছুর আশা না করে সুবিধাবঞ্চিত শিশু কিশোর কিশোরীদের জন্য কাজ করে চলেছে তারাইতো খাটি মানুষ এবং তারাইতো প্রকৃত ছোটদেরবন্ধু। আমরা তাহমিদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি এবং আমরা দোয়া করি আজীবন তাহমিদ যেন এভাবেই ভালোবাসা বিলিয়ে দিতে পারে।

আমরা জানতে চাই তাহমিদের জীবনের স্বপ্ন কি?সে হাসি মুখে জানায় আমাদের দেশের সুবিধাবঞ্চিত শিশু কিশোর কিশোরীদের জন্য কাজ করার পাশাপাশি দুর বিদেশে যে সব দেশে শিশু কিশোর কিশোরীরা একেবারেই সুবিধাবঞ্চিত স্কুলে যাওয়াতো দুরের কথা খাবারও জোটেনা,রাস্তায় কুড়িয়ে নেওয়ার মত কাগজ কিংবা প্লাস্টিকের বোতলও জোটেনা সেই সব অবহেলিত শিশু কিশোরদের জন্য কাজ করতে চাই বিশ্বপরিসরে।কাজ করতে চাই সিরিয়ায় ধুকে ধুকে মরতে থাকা শিশু কিশোর কিশোরীদের জন্য,কাশ্মির ফিলিস্তন লেবানন আফগানস্থান ইরাক,আফ্রিকার দেশগুলির অবহেলিত শিশু কিশোর কিশোরীদের জন্য।তাহমিদের ভাবনাগুলোকে আমরা সম্মান করি এবং আমরা চাই আমাদের এই ছোটদেরবন্ধু তাহমিদ এগিয়ে যাক আর তার সব স্বপ্ন সত্যি হোক। ধন্যবাদ তাহমিদকে।

আমাদের চারপাশে এমন অনেক বন্ধু আছে যারা ছোটদের নিয়ে কাজ করছে আমরা চাই তাদের কথা সবার সাথে শেয়ার করতে।আপনিও লিখুন সেই সব মানুষের কথা আর পাঠিয়ে দিন আমাদের ইমেইলে ছবি সহ। ইমেইলঃ chotoderbondhu@gmail.com

তাহমিদের অর্জন ও কাজের কিছু তালিকাঃ

স্কুলে পড়ার সময় তাহমিদ স্কাউটের সাথে যুক্ত থেকে নিজেকে গড়ে তুলতে চেষ্টা করেছে।

  • ২০১৪ সালে ব্রিটিশ কাউন্সিল এর Active Citizens Youth Leadership Training করেছে।
  • ২০১৪ সালে রাজশাহীতে Active Citizens Regional Achievers’ Summit এ “Best Slogan Campaigner” Award অর্জন।
  • ২০১৫ সালে রাজশাহীতে Active Citizens Regional Achievers’ Summit এ “Outstanding Active Citizens” Award অর্জন।
  • ২০১৫ সালের জুন মাসে সেন্টার ফর কমিউনিকেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ( সিসিডি বাংলাদেশ) সুযোগ দেয় সিসিডি এর হয়ে Active Citizens Youth Leadership Training এর Facilitator হয়ে কাজ করার । তখন থেকে আজ পর্যন্ত কাজ করে যাচ্ছে।
  • ২০১৬ সালের জুনে সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জন্য কাজ করতে প্রতিষ্ঠা করেছে “ইচ্ছে ফোরাম” নামে অরাজনৈতিক সামাজিক সংগঠন।যা সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছে।
  • বর্তমানে সিরাক-বাংলাদেশ এর Right Here Right Now প্রোজেক্ট এ রাজশাহীর কোয়াডিনেটর হিসাবে কাজ করছে । যে প্রোজেক্ট তরুণদের প্রজনন স্বাস্থ্য ও অধিকার, তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠীর আইনী স্বীকৃতি বাস্তবায়ন ও অধিকার নিশ্চিত করা সম্পর্কে কাজ করছে ।

 

— লেখাঃ জাজাফী


আরও পড়ুনঃ

154,105 total views, 281 views today

Facebook Comments

আরও অন্যান্য লেখা