কিশোর কিশোরী সংবাদ নতুন কিছু শিখি স্কুলের তারকা 

পরিকল্পনাবিহীন সামার?ভাবনাতেও নেই আমার

ভ্যাকেশান মানেই আনন্দ।আহ কী শান্তি!নিরবিচ্ছিন্ন ছুটি।কিন্তু আমরা অনেকেই নিরবিচ্ছিন্ন ছুটিটাকে কাজে লাগাতে পারিনা।এর কারণ কি?কারণতো খুব সোজা পরিকল্পনার অভাব।খাবার টেবিলে অন্নেক রকম খাবার থাকলে যেমন আমরা দ্বিধায় পড়ি কোনটা রেখে কোনটা খাবো,কী ইয়াম্মি খাবার সবগুলোর টেষ্ট নেব নাকি কোন একটা দিয়ে আগে শুরু করবো ভাবতে ভাবতেই কারো কারো ক্ষুধা শেষ হয়ে যায়।ঠিক একই ভাবে আমাদের ভ্যাকেশানের দিনগুলোও এভাবে পার হয়েযায় দেখতে দেখতে।আর ভ্যাকেশান শেষে দেখা যায় হায় হায় কী করেছি এই ভ্যাকেশানে? কত কিছু করতে চেয়েছি তার কোনটাইতো হয়নি।শার্লকহোমস পড়িনি,আগাথা ক্রিস্টি পড়িনি।হ্যারিপটার পড়িনি।ঘুরতে পারিনি কুয়াকাটা,কক্সবাজার জাফলং রাঙ্গামাটি ফয়েজ লেক।আব্বু আম্মু ভাই বোন কিংবা বন্ধুদের সাথে যেতে পারিনি সিনেপ্লেক্সে।খেলতে পারিনি কোন প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ।সব হয় পরিকল্পনার অভাবে।ঠিক সেই শেয়ালটা মত যে শীতের রাতে কাপতে কাপতে ভাবতো সকাল হলেই কাথা সেলাই করবো যেন শীতের রাতে কষ্ট পেতে না হয় তার পর দিনের আলো ফুটতেই সব ভুলে যেত কারণ তখনতো আর রাতের মত শীত থাকতো না।আমরাও সেভাবে ভুলে যাই।মনে করি ভ্যাকেশান আসুক সব করবো।

ফাতিহার পরিকল্পনার চার্ট

তোমরা শুনলে ভীষন চমকে উঠবে যে আমাদের এক ছোট্ট রাজকন্যা কিন্তু কখনো ভুলে না।ভ্যাকেশান মানেই তার কাছে পরিকল্পনা আর পরিকল্পনা।বিশেষ করে সামার ভ্যাকেশান হলেতো কোন কথাই নেই কারণ সবাই জানে সামার ভ্যাকেশানই সব থেকে লম্বা ভ্যাকেশান।ও আমাদের বন্ধু ফাতিহা।ছোট্ট ফাতিহার মতে “পরিকল্পনাবিহীন সামার?ভাবনাতেও নেই আমার”।তোমরা যে কেউ চাইলেই ইউটিউবে ফাতিহার ভিডিওগুলো দেখতে পারো খুব সহজেই।মজার ব্যাপার হলো ফাতিহা পৃথিবীর একমাত্র বন্ধু যে স্কুলে যা শিখে আসে সেটা শুধু নিজের জন্য শেখে না বরং সে সেটাকে সারা পৃথিবীর কাছে ছড়িয়ে দেয় যেন অন্যরাও শিখতে পারে।স্কুলের টিচারেরা কিন্তু তাদের মত করে পড়ায় তাই অনেক সময় ছোট্ট তুমি আমি সেটা আমাদের মত করে বুঝতে পারিনা।আমাদের বন্ধু ফাতিহা সেই কথা চিন্তা করেই সব কিছু আমাদের মত করে বুঝিয়ে বলে।ওর ভিডিওগুলো দেখলেই সেটা বুঝা যায়।ম্যাথ ম্যাজিক উইথ ফাতিহা নামে ও যে লেকচারগুলো দেয় সবই অসাধারণ।

এই সামারে ফাতিহার দারুন পরিকল্পনা আছে।ওর ঘরে একটা হোয়াইটবোর্ড আছে যেখানে ও ওর পরিকল্পনার কথা লিখেছে আর আমাদের সাথে সারা পৃথিবীর সাথে শেয়ার করেছে।চলো জেনে নেই কী কী আছে আমাদের ফাতিহার সামার ভ্যাকেশান পরিকল্পনাতে।

  • কুরআন তিলাওয়াত (মুসলিম হিসেবে এটিকে সে অবশ্যই সব থেকে প্রাধান্য দিয়েছে)।
  • বাংলা লেখা ও পড়া (যেহেতু দেশের বাইরে থাকে এবং ইংলিশ মিডিয়ামে পড়ে তাই বাংলা লেখা ও শেখার দারুণ একটি সুযোগ এই সামার ভ্যাকেশান)।
  • টেনিস খেলতে ও খুব ভালোবাসে তাই এই ভ্যাকেশানে সে টেনিসটাও ভালো করে আয়ত্ব করতে চায়।
  • সাতার জানাটা কিন্তু খুব্বি জরুরী এটা ছোট্ট ফাতিহা খুব ভালো করে জানে।যেহেতু পড়াশোনার চাপে সেভাবে প্র্যাকটিস করা হয়না তাই এই সামারে সে সাতারটাও আয়ত্ব করতে চায়।
  • তোমরা নিশ্চই “ম্যাথ ম্যাজিক উইথ ফাতিহা” কথাটি অনেকবার শুনেছ।ফাতিহা গণিত খুব ভালোবাসে। এই সামারে সে তাই তার পরিকল্পনাতে বীজগণিত এবং জ্যামিতি শিখবে বলে ভেবে রেখেছে।
  • আর এতো কিছু করতে গিয়ে যদি খুবই বিরক্তির জন্ম হয় তাই একঘেয়েমি কাটানোর জন্য সে সবার শেষে রেখেছে আনন্দভ্রমন।বাবা মা বন্ধু প্রিয়জনদের নিয়ে আনন্দ ভ্রমনের মজাই আলাদা।মুহুর্তেই কিন্তু সব ক্লান্তি দূর হয়ে যায় এবং মনটাও ফুরফুরে হয়ে ওঠে।

সুতরাং ফাতিহার মতামতটিকে আমাদেরও গুরুত্ব দেওয়া উচিত।ও যেমন মনে করে “পরিকল্পনাবিহীন সামার?ভাবনাতেও নেই আমার” ঠিক একই ভাবে আমাদেরও নিশ্চই ওর মত করে দারুন সব পরিকল্পনা করা উচিত।তাহলে একই সাথে আমাদের ভ্যাকেশান হয়ে উঠবে অসাধারণ।যেন আমরা খেলতে খেলতে আনন্দ করতে করতেও অনেক কিছু শিখে ফেলি।ছোটদেরবন্ধুর পক্ষ থেকে আমাদের বন্ধু ফাতিহাকে অন্নেক আদর ও ভালোবাসা এবং ধন্যবাদ ওর এই পরিকল্পনার কথা জানানোর জন্য।ওর পরিকল্পনার কথা জেনেইতো আমরাও পরিকল্পনা করতে পারবো এবং আমাদেরও মনের মধ্যে ভাবনার উদয় হচ্ছে।


ভিডিওতে দেখুন ফাতিহা

আরও পড়ুন

* সন্তানকে মুখস্থ করাবেন নাকি আবিস্কারের নেশা ধরিয়ে দিবেন সেই সিদ্ধান্ত আপনার।

88,801 total views, 108 views today

Facebook Comments

আরও অন্যান্য লেখা