কিশোর কিশোরী সংবাদ বাল্যবিবাহ 

আরও একটি বাল্য বিয়ে বন্ধ হলো

আরও একটি বাল্য বিয়ে বন্ধ হলো।বিয়ে বাড়িতে বর আসার আগেই পৌঁছে গেলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। তাই থেমে গেল বিয়ের আয়োজন। বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেল চট্টগ্রামের আনোয়ারার এক কিশোরী।

আনোয়ারার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আবদুল মোবিন আজ শুক্রবার ভিংরোল গ্রামে গিয়ে বাল্যবিবাহটি বন্ধ করেন।

স্থানীয় ও প্রশাসন সূত্র জানায়, আজ সকালে ১৫ বছর বয়সী নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর সঙ্গে পাশের গ্রামের এক যুবকের (২৫) বিয়ের কথা ছিল। বর আসার আগেই বেলা ১১টার দিকে মেয়ের বাড়িতে পুলিশ নিয়ে উপস্থিত হন ম্যাজিস্ট্রেট। এ কারণে বিয়ে বাড়িতে আসেননি বর। ম্যাজিস্ট্রেট মেয়ের বাবার কাছ থেকে মুচলেকা নিয়ে বিয়েটি বন্ধ করে দেন।

ওই কিশোরী প্রথম আলোকে বলে, ‘বিয়ের ব্যাপারে আমি কিছুই জানি না। আমি প্রতিদিন বিদ্যালয়ে যাই, আমি পড়ালেখা করতে চাই।’

মেয়ের মা ও বাবা বলেন, ‘প্রশাসন বিয়ে বন্ধ করে মুচলেকা নিয়েছে। এখন কী করব, বুঝতে পারছি না।’

এ ব্যাপারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবদুল মোবিন বলেন, ‘স্থানীয়ভাবে বাল্যবিবাহের খবর পেয়ে আমরা বিয়ে বাড়িতে যাই। বিয়ে বন্ধ করে দিয়েছি। প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার আগে মেয়ের বিয়ে দেবেন না বলে মুচলেকা দিয়েছেন মেয়েটির অভিভাবকেরা।’

4,534 total views, 2 views today

Facebook Comments

আরও অন্যান্য লেখা