কিশোর কিশোরী সংবাদ বাল্যবিবাহ 

বাল্য বিয়ের হাত থেকে বেঁচে গেল প্রিয় আক্তার

প্রিয় আক্তার চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলার ৭নং ওয়ার্ডের বড়ঠাকুর পাড়া গ্রামের ফজর আলী ও শাহানাজ আক্তার দম্পতির মেয়ে। সে পূর্বগুজরা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী।
সম্প্রতি সে অত্যন্ত সাহসের পরিচয় দিয়েছে। তার পরিবার তাকে এই বয়সেই বিয়ে দিয়ে দিচ্ছিল কিন্তু সে সাহস করে বিয়ের আসর থেকে পালিয়ে নিকেজে রক্তা করতে পেরেছে।
বাল্যবিয়ের হাত থেকে নিজেকে রক্ষা করতে বিয়ের আসর থেকে পালিয়ে আশ্রয় নেয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও)কার্যালয়ে। মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।
ইউএনও শামীম হোসেন রেজা স্কুলছাত্রীর কাছ থেকে ঘটনার বিবরণ শুনে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্যোগী হয়ে তার লেখাপাড়ার দায়িত্ব গ্রহণ করেন।
প্রিয়ার মাদকাসক্ত বাবা ফজর আলী জোরপূর্বক তিন সন্তানের জনক ৪৫ বছর বয়সী এক প্রবাসীর  সাথে বিয়ের আয়োজন করেন। মেয়েটি ঘটনার আঁচ করতে পেরে পালিয়ে ইউএনওর কার্যালয়ে চলে যায়।
ইউএনও শামীম হোসেন রেজা বলেন, প্রিয়া বিয়ের আসর থেকে পালিয়ে তার মাকে নিয়ে আমার কার্যালয়ে চলে আসে। মেয়েটি বেশ মেধাবী। সে লেখাপড়া করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হয়ে দেশের সেবা করতে চায়। আমি প্রিয়াকে তার মাদকাসক্ত বাবার হাত থেকে রক্ষা করে তার পড়াশোনার দায়িত্ব গ্রহণ করলাম।
Facebook Comments

আরও অন্যান্য লেখা