ছোট থেকেই যারা বিখ্যাত স্কুলের তারকা 

রাফি কিন্তু এখনো সেরা

ক্লাস ওয়ানে পড়ার সময় আমরা যখন অ আ ক খ পড়া এবং লেখা শেখা নিয়ে ব্যস্ত ঠিক  সময় একটি ছেলে মাইক্রোফোন হাতে সুরেলা কন্ঠে গান গেয়ে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিতে ব্যস্ত। হ্যা বলছিলাম রাকিব রায়হান রাফির কথা। ২০১১ সালে ক্ষুদে গানরাজ প্রতিযোগিতায় চতুর্থ স্থান লাভ করলেও শ্রোতা ও দর্শকদের মনে সে বরাবরই এক নাম্বার হয়ে আছে। বিজয়ীদের আমাদের কারো মনে না থাকলেও রাফিকে আমরা মনে রেখেছি।২০১১ সালের ক্ষুদে গানরাজে তার অবস্থান ছিল চতুর্থ। তখন রাফি নীলফামারীর কালেকটরেট কোয়ালিটি স্কুলে প্রথম শ্রেণির ছাত্র ছিল। গানের এই যাদুকর কিন্তু পড়ালেখায়ও অনেক ভাল। সে তার পিএসসি পরীক্ষাতেও গোল্ডেন এ প্লাস পেয়েছিল।

তবে গায়ক পরিচয়কে ছাপিয়ে রাকিব রায়হান রাফি এখন অভিনেতা!
মিডিয়াতে রাকিবের পদার্পন ২০১১ সালে অনুষ্ঠিত ক্ষুদে গান রাজ প্রতিযোগীতার মধ্য দিয়ে। চ্যানেল আইয়ের প্রতিভা অন্বেষনমূলক এ প্রতিযোগীতায় চতুর্থ স্থান অর্জন করলেও জনপ্রিয়তায় বাকি সবাইকে পিছনে ফেলে সে তার আপন আলো ছড়িয়ে দিচ্ছে।
সুরেলা কন্ঠের অধিকারী রাকিব কন্ঠশিল্পি হলেও অভিনয়ের প্রতি বেশ টান রয়েছে তার। চলচ্চিত্রে রাকিবের অভিষেক হয় ‘প্রিয়া তুমি সুখি হও’ ছবির মধ্য দিয়ে। ছবিতে জনপ্রিয় অভিনেতা ফেরদৌসের ছোটবেলার চরিত্রে অভিনয় করেছিল। এরপর শাকিব খান, অপু বিশ্বাস অভিনীত ‘শোধ’ ছবিতে কাজ করেন রাকিব। এখানে ছবির নায়িকা অপু বিশ্বাসের ভাইয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছে।
বড় পর্দায় অভিনয়ের পাশাপাশি ‘সেভ দ্য চিলড্রেন’ নামে একটি স্বল্প দৈর্ঘ্যর চলচ্চিত্রেও কাজ করেছে রাকিব।  রাকিবের ভাষায়, ‘ শিশুরা কিভাবে অপকর্মের সঙ্গে জড়িত হচ্ছে এমন গল্প নিয়েই শট ফিল্মটি তৈরি করা হয়েছে।
ছবি তুলতে খুব ভালবাসে ও। সেটা ওর ফেসবুক পেজ আর আইডি দেখলেও বুঝা যায়। অল্প বয়সীদের মধ্যে ফেসবুক ফলোয়ারের দিক থেকেও রাকিব রায়হান রাফি সাবার উপরে অবস্থান করছে।
আমাদের এই বন্ধুটি ছোটবেলা থেকেই বিখ্যাত এবং আমরা বিশ্বাস করি সে আরো অনেক উপরে উঠবে। তোমরাও তার কথা মনে করে আপ্রাণ চেষ্টা করলে নিশ্চই সফলতা পাবে।
Facebook Comments

আরও অন্যান্য লেখা